নীলাকাশ টুডেঃ সৌদি আরবের মক্কায় অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘৪২তম বাদশাহ আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা’। এতে ১১১টি দেশের প্রতিযোগীদের মধ্যে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে বাংলাদেশের হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরিম। তার এ সাফল্যে প্রাণঢালা অভিনন্দন জানিয়েছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে দেশে ফেরার কথা রয়েছে তাকরিমের। বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানাবে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ২৩ সেপ্টেম্বর ভোর ১টা ৪৫ মিনিটে দেশে ফিরবেন হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরিম। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খানের পক্ষ থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হবে।

গত ২২ সেপ্টেম্বর বুধবার রাতে মক্কার পবিত্র হারাম শরিফে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। প্রতিযোগিতায় তৃতীয় স্থান অধিকারী তাকরিম পুরস্কার হিসেবে পেয়েছেন এক লাখ রিয়াল (প্রায় সাড়ে ২৭ লাখ টাকা)। পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজের প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তার উপদেষ্টা ও মক্কা নগরীর গভর্নর খালেদ আল ফয়সাল বিন আবদুল আজিজ, ইসলাম ও দাওয়াহ বিষয়ক মন্ত্রী ড. আবদুল লতিফ বিন আবদুল আজিজ আলে শেখ।

সালেহ আহমাদ তাকরিম টাঙ্গাইলের নাগরপুর থানার ভাদ্রা গ্রামের হাফেজ আব্দুর রহমানের ছেলে। তিনি রাজধানীর ‘মারকাযু ফয়জিল কোরআন আল ইসলামী মাদরাসা’র কিতাব বিভাগের শিক্ষার্থী। এই বিষয়ে নীলাকাশ টুডে এর সম্পাদক মোঃ নুরুজ্জামান গতকাল বৃহস্পতিবার ২১/০৯ তারিখে ফেসবুক একটি পোস্ট দিয়েছিলে সেখানে তিনি লিখেছেন “যারা কোরাআন তেলওয়াতে প্রথম হয় তাদেরকে ধর্ম মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি”। আর সেই দাবি পুরন করেছে মন্ত্রণালয়!