নীলাকাশ টুডেঃ নিজের স্কুলের লিফটের দরজায় আটকে এক স্কুল শিক্ষিকার করুণ মৃত্যু হয়েছে। মূলত লিফটে প্রবেশ করতে গিয়ে দরজায় আটকে যায় ওই শিক্ষিকার শরীর। সেই অবস্থাতেই চলতে শুরু করে লিফটটি। এতে গুরুতর আহত হয়ে কিছু সময় পরই মারা যান ২৬ বছরের ওই স্কুলশিক্ষিকা।

গত শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের উত্তরে অবস্থিত মালাডের চিনচোলি বান্দরের সেন্ট মেরি ইংলিশ হাই স্কুলে। শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

 

স্কুল সূত্রে জানানো হয়েছে, লিফটে আটকে মারা যাওয়া ওই শিক্ষিকার নাম গিনেল ফার্নান্ডেজ। ২৬ বছর বয়সী ওই শিক্ষিকা গত শুক্রবার দুপুর ১টার দিকে স্কুল ভবনের সাত তলা থেকে তৃতীয় তলায় নামার জন্য লিফটে উঠেছিলেন। কিন্তু তার শরীরটি পুরোপুরি লিফটে ঢোকার আগেই লিফটের দরজা বন্ধ হয়ে যায় এবং সেটি চলতে শুরু করে।

ওই শিক্ষিকার একটি পা লিফটে ঢুকলেও বাকি শরীর লিফটের বাইরে ছিল। ফলে দেয়াল এবং লিফটের মধ্যে আটকে যান ওই তরুণী শিক্ষিকা। পরে তার চিৎকার শুনে ছুটে আসেন স্কুলের নিরাপত্তারক্ষী এবং শিক্ষার্থীরা। দ্রুত তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

কিন্তু হাসপাতালে নেওয়ার পরই চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু হয়েছে। লিফটে কোনো যান্ত্রিক ত্রুটি ছিল কি না, সেটিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

 

মুম্বাই জোন ১১-এর পুলিশ কমিশনার বিশাল ঠাকুর বলেছেন, ‘যখন তিনি লিফটে প্রবেশ করেন, তখন সেটির দরজা বন্ধ হয়ে যায় এবং লিফটটি চলতে শুরু করে এবং তিনি আটকে যান।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রাথমিক তদন্তের সময়, আমরা একটি দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যুর রিপোর্ট নথিভুক্ত করেছি। যদি কোনো গাফিলতি বা অপরাধ খুঁজে পাওয়া যায়, আমরা সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।’