নীলাকাশ টুডেঃ পিস্তলসহ এক নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ সোমবার ভোরে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার আবাদের হাটখোলা নামকস্থান থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।গ্রেপ্তারকৃত নারীর নাম ফরিদা খাতুন (৪২)। তিনি সাতক্ষীরা সদর উপজেলার আবাদেরহাটের ফজর আলী মিস্ত্রীর মেয়ে।

স্থানীয়রা জানান, স্বামী পরিত্যক্তা ফরিদা তার ছেলে ফারুককে নিয়ে আবাদের হাটখোলায় ভাই মুনসুরের হোটেলে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে। ফরিদার ভাই মোস্তফা ২০১৩-১৪ সালে জামায়াতের রাজনীতি করার কারণে অস্ত্র ব্যবহার করতো। পরবর্তীতে সে নিজেকে বাঁচাতে ক্ষমতাসীন দলের পক্ষ নিয়ে ২০১৬ সালে এলাকায় তান্ডব চালায়। বর্তমানে সে ঢাকায় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করে।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ গোলাম কবীর জানান, বসত ঘরের খাটের নীচে মাটিতে অস্ত্র পুতে রাখা আছে এমন খবর পান পুলিশ। ওই সংবাদের ভিত্তিতে আজ সোমবার ভোরে উপপরিদর্শক আরিফ হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ আবাদের হাটখোলায় ফজর আলী মিস্ত্রীর বাড়িতে অভিযান চালায়। এ সময় ফরিদা খাতুনের ঘরের খাটের নীচে মাটির মধ্যে লুকিয়ে রাখা একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তার করা হয় ফরিদাকে।