মামুন হাচান, ব্যুরো প্রধান খুলনা

স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও দুস্থ মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ এবং আর্থিক সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠান আজ (সোমবার) সকালে খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। জন্মবার্ষিকী পালনে এবারের প্রতিপাদ্য ‘মহীয়সী বঙ্গমাতার চেতনা, অদম্য বাংলাদেশের প্রেরণা’।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সিটি মেয়র বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের টুঙ্গিপাড়ার খোকা থেকে বাঙালির মুক্তির মহানায়ক জাতির পিতা হয়ে ওঠার পেছনে প্রেরণার উৎস ছিলেন বেগম মুজিব। পরিবার হতে সহায়তা না থাকলে মানুষের জন্য কাজ করা ও রাজনীতিতে টিকে থাকা সম্ভব নয়। বঙ্গবন্ধুর পারিবারিক ও রাজনৈতিক জীবনে সর্বতোভাবে সহযোগিতা করে বাঙালীর মুক্তির সংগ্রামকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করেছেন বঙ্গমাতা ফজিলাতুন নেছা মুজিব। তিনি বড় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বড় ডিগ্রীধারী ছিলেনা না তবে দূরদর্শী জ্ঞানসম্পন্ন ও প্রজ্ঞাবান নারী ছিলেন। দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের বিভিন্ন স্তরে তাঁর বলিষ্ঠ অবদান রয়েছে। বঙ্গবন্ধু রাজনৈতিক কারণে কারাগারে থাকাকালে সাহসের সাথে ফজিলাতুন নেছা মুজিব পরিবার ও দলকে গুছিয়ে রেখেছেন।

খুলনার জেলা প্রশাসক মোঃ মনিরুজ্জামান তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মোঃ জিল্লুর রহমান চৌধুরী, জেলা পরিষদের প্রশাসক শেখ হারুনুর রশীদ ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান। অনুষ্ঠানে খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা, প্রেসক্লাবের সভাপতি এস এম নজরুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলমগীর কবীর ও জাতীয় মহিলা সংস্থা খুলনার চেয়ারম্যান অধ্যাপিকা রুনু ইকবাল বিথার বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত জানান মহিলা বিষয়ক দপ্তরের উপপরিচালক হাসনা হেনা। সভায় সরকারি বেসরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা ও বিভিন্ন নারী সংগঠনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠান শেষে দুস্থ নারীদের মাঝে আর্থিক সহায়তা ও সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়। উল্লেখ্য, বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে খুলনা মহানগর ও নয় উপজেলার ৯৫ জন নারীকে সেলাই মেশিন ও ৩০জন নারীকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।