নাছির উদ্দীন পিন্টু ঈদগাঁও প্রতিনিধি।

কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে সদস্য পদপ্রার্থী নুরুল কবির খাঁনের ব্যতিক্রমী নির্বাচনী প্রচারণা, নাছির উদ্দীন পিন্টু কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি।

আসন্ন কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হয়েছে পুরোদমে। কক্সবাজার জেলা পরিষদ নির্বাচনে সদস্য পদপ্রার্থী নুরুল কবির খাঁন অদ্য ২৩ ই সেপ্টেম্বর ২০২২ ইং রোজ: শুক্রবার জুমার নামাজের পর এলাকার মুরব্বি থেকে দোয়া এবং ভালবাসা নিয়ে ভোটারদের দোয়ারে দোয়ারে যাচ্ছেন, নুরুল কবির খান ঈদগাঁওয়ের কৃতিসন্তান কক্সবাজার শহরের পর্যটন ব্যবসায়ী হোটেল ডিঙ্গির সত্ত্বাধিকারী বিশিষ্ট দানবীর জেলা পরিষদ নির্বাচনে সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে যাচ্ছেন। উপজেলার ঈদগাঁও ইউনিয়নের একক প্রার্থী হিসেবে বেশ সাড়া পাচ্ছেন।

তার ঈদগাঁও উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নে বিরামহীনভাবে পরিষদের চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্যদের সাথে কুশল বিনিময় এবং দোয়া কামনা করেন, বৃহত্তর এলাকাকে নিজের অনুকূলে আনার লক্ষ্যে এখন থেকে মাঠে পুরোদমে প্রচারনায় নেমেছে,

জেলা নির্বাচন অফিস সুত্র মতে, মনোনয়ন প্রত্যাহার ২৫ সেপ্টেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ ২৬ শে সেপ্টেম্বর, সর্বশেষ ১৮ অক্টোবর ভোট গ্রহনের কথা রয়েছে,

সম্প্রতি তার নির্বাচনী এলাকায় দিনরাত সময় দিচ্ছেন। নির্বাচনের পূর্ব মুহুর্তে প্রচার প্রচারণা আর জনগণের মাঝে পরিচিতি লাভ করার জন্য ব্যাপক ভাবে গনসংযোগ করে বেড়াচ্ছেন তিনি।

ভোটারদের ভোটের মাঠে আকৃষ্ট করার চেষ্টা চালাচ্ছেন তিনি। উল্লেখ্য যে তিনি করোনা নামক মহামারীতে অসহায়,ক্ষুধার্ত মানুষের পাশে থেকে আর্থিক ভাবে সহযোগীতা করে তার নির্বাচনী এলাকার গনমানুষের ভালবাসায় সিক্ত হয়েছিলেন।

ঈদগাঁও উপজেলার কয়েকজন জেলা পরিষদ নির্বাচনের স্থানীয় ভোটার রা জানান, নুরুল কবির খাঁন। একজন তরুণ প্রজন্মের মধ্যে সৎ, ন্যায়-পরায়ন ও জনবান্ধব প্রকৃতির লোক। বিপদে, দূঃসময়ে আমরা তার নিকট থেকে বিভিন্ন ভাবে সহযোগীতা পেয়েছি এবং এখনো পাচ্ছি। এলাকায় সামাজিক, পারিবারিক বিভিন্ন কার্যকলাপে তাহার ভুমিকা অসীম। আমরা আগামী জেলা পরিষদ নির্বাচনে আমাদের এলাকা থেকে তরুণ প্রজন্মের একজন সৎ নির্বিক জনপ্রতিনিধি হিসেবে তাকেই দেখতে চাই। সাবেক এই ছাত্রনেতার তার নির্বাচনী এলাকায় বিশাল জনপ্রিয়তা রয়েছে বলে বিশেষ সূত্রে জানা যায়।

এ ব্যাপারে জেলা পরিষদ নির্বাচনে সদস্য পদপ্রার্থী নুরুল কবির খাঁনের। নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, আমি আমার নির্বাচনী এলাকার মানুষের সেবা করার প্রতিজ্ঞা নিয়ে নির্বাচনে নেমেছি। আমি আমার নির্বাচনী এলাকাকে একটি মডেল এলাকা হিসেবে পরিণত করা আমার লক্ষ্য। আমি আশাবাদী এবং আমার এলাকার ভোটারদের প্রতি দৃঢ় বিশ্বাস যে,সকলেই আমাকে ভোট দিয়ে এলাকার উন্নয়ন মূলক কাজ করার সুযোগ দিবে। আমার স্বপ্ন বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার। আমি জননেত্রী শেখ হাসিনার একজন সাধারন কর্মী হিসেবে আমার এলাকার উন্নয়নের অংশীদার হতে চাই। জেলা পরিষদ নির্বাচনে জয়যুক্ত হওয়ার জন্য আমি আমার নির্বাচনী এলাকার সকল ভোটারদের দোয়া ও আশীর্বাদ প্রত্যাশী।