নীলাকাশ টুডেঃ বাংলাদেশ গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব ও ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেছেন, ‘আমরা গত ৩৪ বছরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দুই দলকেই ক্ষমতায় দেখেছি। তাদের চরিত্র একই। এ দুই দল ক্ষমতায় থাকলে জনগণের কিছুই হবে না। এজন্য তৃতীয় কোনো শক্তিকে আমাদের ক্ষমতায় নিতে হবে।’

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) জাতীয় প্রেস ক্লাবে গণসংহতি আন্দোলন আয়োজিত ‘ভোটাধিকার ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় রাজনৈতিক প্রস্তাব’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

 

নুরুল হক নুর বলেন, বর্তমান সরকারকে ক্ষমতা থেকে নামাতে আমাদের ঐক্য গড়তে হবে। এই ঐক্যে একটা নির্যাতিত দল হিসেবে বিএনপিকে সঙ্গে রাখতে পারি। কিন্তু তাদের হাতে ক্ষমতা ছাড়া যাবে না।

বিএনপির ভুল আছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘তাদের সিদ্ধান্তে ভুল আছে মানলাম, তাই বলে তাদের গুলি করে হত্যা করতে হবে এটা তো সমর্থন করা যাবে না।’

ঐক্যের ইঙ্গিত দিয়ে নুর বলেন, ‘আজকে আমাদের গণ ঐক্য গড়তে হবে। যাদের সঙ্গে রাজপথে ঐক্য সম্ভব, তাদের সঙ্গে রাজপথে আর যাদের সঙ্গে টেবিলে ঐক্য সম্ভব, তাদের সঙ্গে টেবিলে ঐক্য করব।’

 

সরকারকে উদ্দেশ্য করে নুর বলেন, ‘আপনারা এখনই সিদ্ধান্ত নিন। সময় আছে। যদি সিদ্ধান্ত নিতে ভুল করেন, তবে আপনারা খেসারত দেবেন, যে খেসারত জনগণ গত ১৩ বছর ধরে দিচ্ছে। আপনারা এই যে ঋণগুলো নিচ্ছেন, এগুলো পরিশোধ কে করবে? আমরা চাই না আপনাদের পালানোর রাস্তা না থাকুক। আমরা চাই ভালো করেই নিরাপদে ক্ষমতা ছাড়ুন।’

মতবিনিময় সভায় গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকির সভাপতিত্বে রাজনৈতিক প্রস্তাব পাঠ করেন নির্বাহী সমন্বয়কারী আবুল হাসান রুবেল। এতে বক্তব্য রাখেন, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল হক নুর, জাতীয় লীগের সভাপতি শাহরিয়ার ইফতেখার ফুয়াদ, জেএসডির শফিউর রহমান স্বপন, গণসংহতি আন্দোলনের ফিরোজ আহমেদ, সাখাওয়াত হোসেন ভুইয়া, হাবীবুর রহমান রিজু প্রমুখ।